প্রত্যেক অবিবাহিত পুরুষের ঘরে যা থাকা উচিত

বলা হয়, অবিবাহিত পুরুষরা অগোছালো হন। তাদের ঘরে প্রয়োজনীয় আসবাব বা জিনিসপত্র থাকে না। এখানে বেশ কয়েকটি জিনিসের কথা তুলে ধরা হলো। এর মাধ্যমে একজন অবিবাহিত পুরুষের ঘরটা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রে গোছালো হয়ে উঠবে।

১. যথাযথ আলোর ব্যবস্থা : ঘরে প্রবেশের পর মনটা ভালো করতে পারে একমাত্র আলোকব্যবস্থা। ছোট ছোট ল্যাম্প কিনে ফেলুন কয়েকটি। টেবিলে, দেওয়ালে এবং এমন যেকোনো স্থানে লাইট লাগাতে পারেন যা দৃষ্টিনন্দন হয়। গুণগতমান এবং দামের মধ্যে সমন্বয় করবেন। বেশ কয়েকদিন অনায়াসে টিকে যাবে এমন জিনিস করাই ভালো।

২. আরামের চেয়ার : এমন একটা স্থান দরকার যেখানে বসে আরামে চিন্তা করা বা পড়া বা একটু ঝিমিয়ে নেওয়া যায়। এক বিশেষজ্ঞ বলেছিলেন, একটা চেয়ার তখনই আরামদায়ক হবে যখন এতে অন্তত এক ঘণ্টা সময় অনায়াসেই কাটিয়ে দেওয়া যাবে। সাধারণত চামড়ায় মোড়ানো ক্লাব চেয়ার কিনলে অর্থ নষ্ট হয় না।

৩. বুকশেলফ : বই রাখার জন্যে বিশাল কাঠামো প্রয়োজন নেই। তবে সুন্দর দেখায় এমন কিছু বই রাখার জন্যে সুন্দর তাক বানিয়ে নিতে পারেন।

৪. চেস্ট অব ড্রয়ারস : এটা বহু উপকারী একটি জিনিস। দামি-কমদামি সব ধরনের পোশাক গুছিয়ে রাখতে এর গুরুত্ব অপরিসীম। যেকোনো ঘরে এটি অন্যতম সৌন্দর্যের কারণ। তাই মনের মতো একটি চেস্ট অব ড্রয়ার না হলেই নয়।

৫. একটা পেইন্টিং : ভালো একটা পেইন্টিং আপনার গোটা জীবনের সবচেয়ে দামি সম্পদ হতে পারে। কিছু অর্থ জমিয়ে একটা সুন্দর পেইন্টিং কিনে ফেলুন। এটা আপনার রুচিবোধের পরিচায়ক।

৬. হেডবোর্ড : বিছানায় একটি আরামদায়ক ম্যাট্রেসের ব্যবস্থা করলেই হবে না। মাথার কাছে সুন্দর কাঠের তৈরি বোর্ড রাখুন। এটা অনেক মডার্ন এবং আত্মতুষ্টির বিষয়।

৭. একটা গাছ : ঘরের ভিতর সবুজায়ন সম্ভব। এতে ঘরের চেহারাই বদলে যাবে। ঘরের মধ্যে দিব্যি বেঁচে থাকে এমন অনেক ধরনের গাছ পাওয়া যায়। চোখে পড়ে এমন স্থানে একটা গাছ রাখুন।

৮. সাদা চাদর ও পর্দা : এই রংটা চোখে পড়লেই ভালো লাগে। বিছানার জন্যে দুই সেট সাদা চাদর কিনে রাখুন। জানালার পর্দা একই রংয়ের কিনে রাখুন। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার